দৃশ্য
সুব্রত মণ্ডল


তোমার নগ্নতা আমাকে শিথিল করেছে। বহুদিনের কেটে দেওয়া পুরোনো চুল, উত্থিত ঢেউ, সবুজ নিঃশ্বাস___ একে একে মরে যাওয়া কিশোর প্রেমিক, তোমাকে বদলে দিয়েছে এই পৃথিবীর কাছে। এখন যেদিকেই চোখ রাখি চারপাশে আধুনিক বাঘের বোতল, গড়াগড়ি খেতে খেতে উড়ে আসে___  তেলচিটে প্লাস্টিক, বিড়ির চিকচিকা আর প্রেমিকের না বলা সব কথা। 
একদিন তোমাকে জড়িয়ে ধরে রাতের পর রাত ভেসে গিয়েছি লাবণ্যময়ী  কালাঙ্গুট দ্বীপে। সেখানে মায়াঘেরা জাফরানি পানি, রূপোলী ঢেউ, রূপকথার চাঁদ, অনাবৃষ্টিতেও ছাতা দেখিয়েছিল। নিঃশব্দে ঢুকে গিয়েছিল রহস্যময় চুলের ফাঁকে। 
তোমার বশ্যতা আমাকে হতাশ করে দিয়েছে। সারারাত জেগে থেকে দেখি ল্যাংটা পিচরাস্তা থেকে ক্রমশ সরে যাচ্ছে আয়ু। আমাদের রেডহীন আসর, প্যান্ডেল খোলা পাড়ের ধূসর কবি ও কবিতার যৌনকেশে অবোধ শিশুর মতো জমে যাওয়া সন্ধ্যার বাতাস।
 এই ভরা ঠান্ডায় মনোরম পাড়ে এতো মাংসের গন্ধ কোথা থেকে আসে! এতো আধছাটা চুল, ন্যাড়া মাথা, রংচটা ব্রায়ের জীবন কেন অকালে ভিজে যায় সামান্য ভিড়ে!

1 Comment

  • Kaushik Sen

    Reply January 2, 2022 |

    সমৃদ্ধ লেখাটি। চমৎকার পরিবেশনা।

Leave a Reply to Kaushik Sen Cancel reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

loading...